1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

নারী-পুরুষ পাশাপাশি নয়!

অলিম্পিক গেমস নয় যে ভাই-বোনকেও নিয়ম মেনে দৌড়াতে হবে আলাদাভাবে৷ বিশেষ কিছু আয়োজন এমন হয় যেখানে নারী-পুরুষ, ছেলে-বুড়ো সবাই দাঁড়ান এক কাতারে৷ হামাস আপত্তি জানানোয় ম্যারাথনের সেরকম এক আয়োজন বাতিল হলো গাজায়৷

আয়োজক জাতিসংঘের ত্রাণ ও কর্ম বিষয়ক সংস্থা ইউএনআরডাব্লিউএ৷ সংস্থাটি ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুদের জন্য কাজ করে৷ সবাইকে অংশ নেয়ার আহ্বান জানিয়ে ম্যারাথনের আয়োজন আগেও দুবার করে সফল হয়েছে তারা৷ ২০১১ সালের প্রথম আয়োজনে অংশ নিয়েছিলেন অনেকে৷ মেয়েরাও অংশ নিয়েছেন৷ পুরুষদের সঙ্গে দৌড়েছিলেন শতাধিক মহিলা৷ বার্তাসংস্থা এএফপির এক প্রতিনিধিও ছিলেন তাঁদের মাঝে৷

epa02718727 Palestinian school children take part in the first Gaza Marathon in Beit Lahiya, northern Gaza Strip, 05 May 2011. According to United Nations estimates some 1,500 people attended the event, including children who ran short distances, running the course from Beit Hanoun in the northern Gaza Strip, to Rafah in the south covering the entire length of the coastal enclave. EPA/ALI ALI +++(c) dpa - Bildfunk+++

এক বিবৃতিতে ইউএনআরডাব্লিউএ জানিয়ে দিয়েছে মেয়েদের অংশগ্রহণে কড়াকড়ি তারা মেনে নেবেনা, আর তাই ম্যারাথনের এ আয়োজন এবার হচ্ছে না (ফাইল ফটো)

গত বছর অংশগ্রহণকারী আরো বেড়ে যেতে দেখে এবার আরো বড় আয়োজনের স্বপ্ন দেখেছিল ইউএনআরডাব্লিউএ৷ কিন্তু গাজায় আন্তর্জাতিক ম্যারাথনের তৃতীয় আসরটি এবার হচ্ছে না৷ হামাস জানিয়েছে, ম্যারাথন হোক, কিন্তু মেয়েরা সেখানে দৌড়াতে পারবেনা৷ পরে একটু শিথিল হয়ে, নারী-পুরুষ আলাদাভাবে অংশ নিলে এ আয়োজনকে সমর্থন দেবে বলে জানালেও ইউএনআরডাব্লিউএ আর রাজি হয়নি৷ এক বিবৃতিতে সংস্থাটি জানিয়ে দিয়েছে মেয়েদের অংশগ্রহণে কড়াকড়ি তারা মেনে নেবেনা, আর তাই ম্যারাথনের এ আয়োজন এবার হচ্ছে না৷

অথচ এবার গাজার এ আয়োজনে অংশ নেয়ার জন্য ৮০৭ জন নাম লিখিয়েছিলেন৷ সেখানে ৫৫১ জন ফিলিস্তিনি আর বাকি ২৫৬ জন দৌড়বিদ৷ অংশ নিতে ইচ্ছুকদের মধ্যে ২৬৬ জন বিদেশি হলেও ১১৯ জন নারীই ফিলিস্তিনের৷ ফিলিস্তিনি মেয়েদের যে ম্যারাথনে অংশ নেয়ার আগ্রহ প্রবল তা এ পরিসংখ্যানই বলে দিচ্ছে৷ সবই জানানো হয়েছিল হামাসকে৷ তারপরও কাজ হয়নি৷ প্রথমে জানানো হয় মেয়েরা অংশই নিতে পারবেনা৷

আলাপ-আলোচনার পর সেখান থেকে সরে দেয়া হয় নারী আর পুরুষের আলাদাভাবে অংশ নেয়ার অনুমতি৷ ইউএনআরডাব্লিউএ তা মানতে পারেনি৷ এক বিবৃতিতে অংশ গ্রহণের জন্য নাম তালিকাভুক্ত করা সবার উদ্দেশ্যে সংস্থাটি বলেছে,‘‘ আসরটি হচ্ছেনা, যাঁরা অংশ নিতে চেয়েছিলেন তাঁদের কথা ভেবে আমরা দুঃখিত৷''        

এসিবি/ এসবি (এএফপি)

DW.DE